মঙ্গলবার , ২১ মে ২০১৯ মঙ্গলবার , ২১শে মে, ২০১৯ ইং, ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Home / ক্যাম্পাস / এস এস সি ৯৭ ও এইচ এস সি ৯৯ ব্যাচের জম কালো বনভোজন-২০১৯ সম্পন্ন ।

এস এস সি ৯৭ ও এইচ এস সি ৯৯ ব্যাচের জম কালো বনভোজন-২০১৯ সম্পন্ন ।

এস এস সি ৯৭ ও এইচ এস সি ৯৯ ব্যাচের জম কালো বনভোজন-২০১৯ সম্পন্ন ।

আজ ১ মার্চ এস এস সি ৯৭ ও এইচ এস সি ৯৯  জম কালো বনভোজন সম্পন্ন হয় লাজ পল্লি, হেমায়েতপুর, সাভার। সারা দেশ থেকে  এস এস সি ৯৭ ও এইচ এস সি ৯৯ ব্যাচের  প্রায় ১০০০ প্রাক্তন ছাত্র -ছাত্রী অংশ গ্রহণ করে।

প্রতিটি মানুষের জীবনে বন্ধুত্ব যেন একটি স্বর্গীয় সম্পর্ক। আমরা সেই ছোটবেলা থেকে কতজনের সাথেই না বন্ধুত্ব করি। কেউ খেলার সাথী। কারও সাথে পরিচয় স্কুলে। কেউ থাকে পাশের বাড়িতে। কিন্তু বড় হতে হতে ঝরে যায় আমাদের অনেক সম্পর্ক। ছোটবেলার বন্ধুরা এক সময় কোথায় হারিয়ে যায়! সেই হারানো বন্ধুত্ব ফিরে পেলে কেমন অনুভূতি হয় !!

 

প্রায় ২২ বছর পর দেখা হলো সব বান্ধবীদের সাথে, যাদের সাথে নিয়মিত স্কুলের এক বেঞ্চে বসা, দুষ্টুমি করা, গল্প হাসি-কান্না সবকিছুই চলতো। তাই বহু আকাংখিত সেই দিন ছিলো ১ মার্চ ২০১৯  । একেই বন্ধুত্ব বলে , খুব সুন্দর একটা দিন কাটিয়েছি আমরা, অল্প কজন কেই চিনতাম আমি। তারপরেও সব্বাইকে আপন মনে হয়েছে, সবাই ব্যাচমেট বন্ধু।একে একে পরিচয় হয় , এরমধ্যে যে প্রানের বন্ধন ছিলো, আত্মার টান ছিলো তা প্রতি মুহূর্তে সবার চোখেমুখে ।

 

অনুষ্ঠান সূচীতে ছিল
১) আগমন এবং কুশল বিনিময়
২) কেক কেটে বন্ধুত্ব উৎদযাপন
৩) 
 পূনর্মিলন অনুষ্ঠান

৪) সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

মেজবাহ এর উপস্থাপনায় শুরুতেই বিটুল ও তার দলে নাচ সবাইকে মুগ্ধ করে, এর পর একের পর এক সংগীত পরিবেশন করেন  মনিকা রাউত , শারমিন জু্‌ই , হুমায়রা জেনি ,  ফরহাদ হোসেন গান সবাইকে মন মুগ্ধ করেছে, সর্বশেষ  ডিকেন গানওয়ালার গান সবাইকে মাতিয়ে রেখে ছিল, যা অনেক দিন সবাই মনে রাখবে।

আবুল হাসনাত  বলেন ইদানীং কালের কৃত্রিম সব মানুষের মাঝে প্রান ফিরে পাওয়া সময়গুলো বারবার ফিরে আসুক নিস্বার্থ বন্ধুত্ব নিয়ে আর সবাইকে বুঝিয়ে দিক, একেই বন্ধুত্ব বলে।  খুব সুন্দর একটা দিন কাটিয়েছি আমরা, অল্প কজন কেই চিনতাম আমি। তারপরেও সব্বাইকে আপন মনে হয়েছে, সবাই ব্যাচমেট বন্ধু। সবসময় মনে হতো এমন করে কি আদৌ আমাদের এক সাথে হওয়া সম্ভব কিনা?  সবার এতো প্রানবন্ত উপস্থিতি প্রোগ্রাম কে স্বার্থক করেছে। ”

সাব্বির ফেরদৌস রাতুল বলেন “বন্ধুত্বের টানে বন্ধুর পথকে উপেক্ষা করে তোমরা এসেছিলে। জানি, আজীবন এভাবেই আসবে, পাশে থাকবে, দৃঢ় হবে বন্ধন। যারা আসতে পারোনি, দুঃখ করোনা। কোনো এক মাহেন্দ্রক্ষণ এ আবার দেখা হবে। সেইদিন পর্যন্ত ভালো থেকো সবাই, এগিয়ে যাও দূর্বার”

 

সাইমা আকতার বলেন “কোন কৃত্রিম কিছু না,যা ছিলো তার পুরোটাই ছিল প্রাকৃতিক।একেই বলে স্কুল এর বন্ধু।
ইদানীং কালের কৃত্রিম সব মানুষের মাঝে প্রান ফিরে পাওয়া সময়গুলো বারবার ফিরে আসুক নিস্বার্থ বন্ধুত্ব নিয়ে আর সবাইকে বুঝিয়ে দিক, একেই বন্ধুত্ব বলে। ”

 ইংরেজি সাহিত্যের লেখক ভার্জিনিয়া উলফ বলেছিলেন, ‘কেউ কেউ পুরোহিতের কাছে যায়, কেউ কবিতার কাছে, আমি যাই বন্ধুর কাছে।’’
বন্ধু জীবন ক্রান্তিকালে এভাবে মুখে হাসি ফুটিয়ে বেঁচে থাকিস চিরকাল, প্রকৃতির সেরা সৃষ্টি বন্ধু! সক্রেটিস বলেছিলেন গাছের মতো বন্ধুত্বকে পরিচর্চা করতে! আইনস্টাইনতো বলে ই দিয়েছিলেন পৃথিবীর সেরা তিনটি সুন্দর জিনিসের একটি হলো বন্ধুত্ব! তাই-

বন্ধুত্ব অটুট থাকুক”।..

 

 

 

 

 

 

 

 

 

About todaynews24

Check Also

কবরের জায়গা খুঁজছেন এরশাদ

নিজের জন্য কবরের জায়গা খুঁজছেন জাতীয় পার্টি (জাপা) চেয়ারম্যান ও সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা এইচএম …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *